পূর্ব-জন্মের ঋণ (Karmic debt / relationship):

“ऋणानुबन्धरूपेण पशुपत्निसुतालया:।
ऋणक्षये क्षयं यान्ति का तत्र परिवेदना॥“


অর্থাৎ, পূর্ব-জন্মের ঋণানুবন্ধ রূপের নির্দেশক।
আমরা সকলেই পূর্ব পূর্ব কর্মফলে আবদ্ধ পূর্ব জন্মের ঋণের দায়ে আমাদের এই জন্ম। আমদের পূর্ব-জন্মের পিতৃ-মাতৃ ঋণ তো আছেই, তা ছাড়াও, পোষা কুকুর, বিড়াল ইত্যাদি গবাদিপশু, পতি/পত্নী, সন্তান আরও অনেকের কাছেই আমরা ঋণী। আর, ঐ ঋণ পরিশোধ করতেই আমাদেরকে পুনরায় এই জন্ম নিতে হয়েছে।
আর, পূর্বের সঞ্চিত কর্মের স্মৃতি গুলি আমাদের মনের “অবচেতন”- নির্জ্ঞান স্তরে রহিয়াছে। এই মনের নির্জ্ঞান স্থরকে জ্যোতিষ শাস্ত্রে বলা হইয়াছে, “কেতুগ্রহ (Moon’s South Node) – টিই ইহার নির্দেশ”।

Leave a Reply

Please log in using one of these methods to post your comment:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out /  Change )

Google photo

You are commenting using your Google account. Log Out /  Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out /  Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out /  Change )

Connecting to %s

%d bloggers like this: